Home / প্রচ্ছদ / প্রয়োজনে আইন করে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করা হবে।

প্রয়োজনে আইন করে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করা হবে।

খান মাহমুদ :
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আবদুল হাই বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে যথেষ্ট প্রচার করা হয়েছে। জনগণ এখন জানে কেনো ডেঙ্গু হয়, কীভাবে প্রতিরোধ করতে হয়। তিনি বলেন, ভালোবাসার দিন শেষ, এখন থেকে প্রয়োজনে আইন প্রয়োগ করে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে রাখা হবে।

রোববার ( ৫ জানুয়ারি) ডিএনসিসির গুলশানস্থ নগর ভবনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় কিউলেক্স ও এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ প্রসঙ্গে তিনি এসব কথা বলেন।

মতবিনিময় সভায় ডিএনসিসির মশক নিধন সাম্প্রতিক কার্যক্রম নিয়ে উপপ্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লে.কর্নেল ডা. মোস্তফা সারওয়ার এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কার্যক্রম নিয়ে ডা. আফসানা আলমগীর খান দুটি পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন।

ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে বিষয়ে জনগণকে সচেতন করা হয়েছে। কিন্তু এখনো যদি কেউ সচেতন না হন, তবে আইন অনুযায়ী জেল-জরিমানা করা হবে।

ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোমিনুর রহমান মামুন বলেন, মশক নিয়ন্ত্রণে ইতিমধ্যে ডিএনসিসির রিসোর্স বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া সার্বক্ষণিক কীটতত্ববিদদের কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে সে অনুযায়ী কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

কিউলেক্স মশা নির্মূলে গবেষণা করে সম্ভাব্য প্রজননখেত্র (হটস্পট) চিহ্নিত করে সেগুলো ধ্বংস করা হয়েছে। বাড়ি বাড়ি চিরুনি অভিযান অব্যাহত থাকবে। ডেঙ্গুর কারণে যাতে আর কোনো প্রাণহানি না ঘটে সে জন্য ডিএনসিসি সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

কীটতত্ববিদ ড. মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী বলেন, এটা মনে করাটা ভুল হবে যে, গত বছর ডেঙ্গুর পাদুর্ভাব বেশী ছিল, এবছর কমে যাবে। আমাদেরকে সারা বছর কাজ করতে হবে। এখন থেকে প্রস্তুত হতে হবে। সামাজিক সংগঠনগুলোকে মশা নিয়ন্ত্রণে আরো বেশি করে সম্পৃক্ত করতে হবে। তিনি ফোর্থ জেনারেশন লার্ভিসাইডিংয়ের মাধ্যমে মশা নিয়ন্ত্রণের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদা সাবরিনা ফ্লোরা বলেন, ডেঙ্গুর কারণে গতবছর আমরা অনেক ‘সাফার’ করেছি, আবার আমরাই সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ করেছি। মশার বংশবিস্তার নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি আধুনিক ও কার্যকরী বর্জ্য ব্যবস্থাপনার দিকে মনোযোগী হতে হবে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কবিরুল বাশার বলেন, শুধু ফগিং করে কাজ হবে না, ইন্টিগ্রেটেড ভেক্টর ম্যানেজমেন্ট (আইভিএম) করতে হবে। গতবছরের বিভিন্ন ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে আমাদের এগুতে হবে। গতবছর বিভিন্ন ‘রিপিল্যান্ট’ এর মূল্য বৃদ্ধি প্রসঙ্গে তিনি বলেন আমাদের দেশে মশার বিভিন্ন ‘রিপিল্যান্ট’ প্রস্তুত করতে হবে, যাতে অন্য দেশের প্রতি আমাদের নির্ভরতা না থাকে।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ শফিউল্লাহ, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা, , কীটতত্ববিদ ডা. সাইফুর রহমান, যমুনা টেলিভিশনের সিনিয়র সাংবাদিক শওকত মঞ্জুর শান্ত, বিভিন্ন সোসাইটির নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, সিভিল এভিয়েশনের প্রতিনিধি প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। #

About Afridi

Check Also

মান্দায় বন্যা কবলিত অঞ্চল পরিদর্শন করলেন বিএনপির নেতা মকলেছুর রহমান

শাহাদৎ রাজীন সাগর, স্টাফ রিপোটারঃ নওগাঁর মান্দায় ভারি বর্ষণ ও উজান থেকে ধেয়ে আসা পানির …

কুষ্টিয়া শহরের প্রসিদ্ধ মিষ্টান্ন ও খাবার প্রতিষ্ঠান আলোকিত মৌবন।

একটি মানুষ। সাফিনা আনজুম জনী Safina Anzum Jony। কিন্ত তিনি অনেকের কাছে আলোকবর্তিকা হিসেবেই উপাখ্যান। …

আজ পাইকগাছা পৌরসভার মাধ্যমে নবলোক এর হাইজিন কিট বিতরণ

পাইকগাছা প্রতিনিধিঃ এন.কে রায়ঃ আজ পাইকগাছা পৌরসভার ২টি (৩,৪)ওয়ার্ডের সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলর দ্বয় নিজ নিজ ওয়ার্ডের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *