Home / প্রচ্ছদ / সাভারে গোলাপ বাগানে সন্ত্রাসী হামলায় মামলা নিরাপত্তাহীনতায় চাষি পরিবার

সাভারে গোলাপ বাগানে সন্ত্রাসী হামলায় মামলা নিরাপত্তাহীনতায় চাষি পরিবার

মাহমুদ খাঁন: গোলাপ দেখতে সুন্দর ও লোভনীয় ফুলের মধ্যে অন্যতম। এই গোলাপ ফুল যারা চাষ করেন তাদের মন মানুষিকতা কতটা সুন্দর ও নিষ্ঠাবান হয় তা হয়তো গোলাপ প্রেমিরাই সব চেয়ে বেশি বুঝবেন। আর এই গোলাপের বাগান যারা ধ্বংস করে তাদের হৃদয় কতটা কঠর তা হয়তো সকলেরই জানা। চলতি বছরের ১৪ই জানুয়ারি অর্থাৎ বিশ্ব ভালবাসা দিবসের ১মাস পূর্বেই ঢাকার সাভারের নগরকান্দার বনগ্রাম (বনগাঁ) এলাকায় গোলাপ চাষি নাছির উদ্দিনের গোলাপ বাগানে অস্ত্র সাজে সজ্জিত হয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হামলা চালায় ইয়াসিন ও রাকিব বাহিনী। এ বিষয়ে পৃথক ২ (দুই)টি মামলা দায়ের করেন গোলাপ চাষি নাছির উদ্দিন ও জমির আলী। মামলা নং ৯৩ ধারা; ১০৯/৩২২/৩২৫/৪২৫/৪৩৫/৪৪১/৫০৬/৩৫৪ দঃ বিঃ এবং মামলা নং ৯৩ ধারা; ১০৯/১১২/৩০৭/৩২৬/৩৮২/৫০৬ দঃ বিঃ। সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত গোলাপ চাষি নাছির উদ্দিন ও জমির আলীর সাথে জমি জমা সংক্রান্ত বিষয়ে আদালতে মামলা চলছে একই এলাকার ইয়াসিনদের সাথে। বিভিন্ন সময়েই ইয়াসিন বাহিনী নাছির উদ্দিন ও জমির আলীর পরিবারকে হুমকি দিয়ে আসছিল তাদের পরিবারের বর ধরনের ক্ষতিসাধন করার। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৪ই জানুয়ারি সকাল সারে ১০টায় গোলাপ চাষি নাছির উদ্দিন ও জমির আলীর গোলাপ বাগানে প্রায় অর্ধশত সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় ওই এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলাম গোলাপ চাষি তৈয়ব আলিকে দেশিয় রামদা দিয়ে মাথায় ও ডান হাতে কোপ দেয় অতঃপর আবঃ জলিলের ছেলে মোশারফ (২৭) লোহার সাবল দিয়ে বাম হাতে কোপ দেয় এবং মৃত লাল মিয়ার ছেলে বাদশা মিয়া সাবল দিয়ে বেধর পিটিয়ে তৈয়ব আলির বাম পা ভেঙে ফেলে। বর্তমানে তৈয়ব আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এছাড়াও স্থানীয় উজির মিয়া, সাইদুল ইসলাম, দিন ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম, নাজির মিয়া, আল ইসলাম, নাঈম মিয়া, সুরুজ মিয়া, আমির হোসেন, ইয়াসিন, রহিম, ওবায়দুল, জোবায়দুল আবু সাঈদ, হাশেম, কালাম, জাহিদুম, নূর ইসলাম, হাবিব, আবুল, জলিল, আবু তাহের, সালমা বেগম, জবেদা খাতুন, শাহানুর, কদর ভানু, মিনা আক্তার, ফারুকসহ প্রায় অর্ধ শতাধিক লোক দেশিয় অস্ত্র নিয়ে তৈয়ব আলির পরিবারের সকল সদস্যদের উপর হামলা চালায়। এসময় নারিসহ তৈয়ব আলির পরিবারের প্রায় ১৫জনেরও বেশি সদস্য গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় সুত্রে আরও জানা যায়, শুধু সন্ত্রাসী হামলা করেই থামেনি রাকিব বাহিনী। পুরো গোলাপ বাগান কেটে ফেলেছে এই সন্ত্রাসী সিন্ডিকেট। এতে গোলাপ চাষিদের প্রায় ১৫-২০লাখ টাকার বাগানের ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় সাভার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে পরিস্থিতি সাভাবিক হয়। তবে এতক্ষনে সকল সম্বলই শেষ হয়ে যায় গোলাপ চাষিদের। জানা যায় এ বিষয়ে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা হওয়ার পর সন্ত্রাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে পুনরায় হুমকি দিয়ে আসছে মামলা উঠিয়ে নিতে। এতে চরম নিরাপত্তাহিনতায় ভুগছে গোলাপ নিরীহ চাষি পরিবার। এ বিষয়ে সরেজমিনে অভিযুক্তদের বারিতে গিয়েও কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে অভিযুক্তদের এক আত্মীয় পরিচয়ে এক ব্যাক্তি (৫৫) জানান, চুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই ঘটনাটি ঘটেছে। তবে বিষয়টি স্থানীয় এক চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতেই হয়েছে।

About Khan Mahmud

Check Also

ক্রেতা সেজে চুরি,৬ নারী সহ আটক ৭

মাহমুদ খাঁন:নোয়াখালী জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) অভিযান চালিয়ে আন্তজেলা চোর চক্রের ৬ নারী সদস্যকে …

শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় থাকলেই দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় থাকে- শেখ হারুনুর রশীদ

—আক্তারুল আলম সুমন-খুলনা ব্যুরো প্রধান– ২৯/০১/২০২০ তারিখে তেলিগাতী নেপাল আশ্রম পুজা কমিটি কতৃক আয়োজিত স্বরসতী …

ডুমুরিয়ার দেড়ুলি তে চলছে পিঠা উৎসব।

রিপোর্টার… সঞ্জয় জোদ্দার… ডুমুরিয়া,খুলনা শীত প্রায় শেষের পথে আর এই শীতকে বিদায় জানাতে। দেড়ুলি একতা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *